আমার স্বাধীনতা

তুমি আমার আকাঙ্ক্ষা, আমার দর্শন

হৃদয়ের গহনে চব্বিশ বছরের লালিত স্বপ্ন,

কোটি মানুষের চেতনা, সত্তা, পরমাত্মা

ছাপ্পান্ন হাজার বর্গমাইলের সংগ্রাম, লড়াই।

 

তুমি কৃষকের হাসি, কিষানীর গান,

মজুরের সাহস, শ্রমিকের প্রতিপত্তি,

কলমজীবীর উদ্দিপনা, শিক্ষাবিদের বিবেক।

স্বাধীনতা, তুমি কোটি মানুষের অধিকার।

 

স্বাধীনতা, আমি তোমার গান গাই

কিষান-কিষানী, মজুর শ্রমিক,

কলমজীবী ও শিক্ষাবিদ- কোটি হৃদয়

তোমার চেতনা ও অস্তিত্বের কথা বলে।

 

শোনো তবে, চিৎকার করে আমি বলতে চাই

আমি-আমরা, কোটি মানুষ আজ স্বাধীন

যেমন করে প্রত্যুষে চিৎকার করে পক্ষীকুল

দ্বিধা, ভয়, শঙ্কা-আশঙ্কা ছাড়া, তেমনই করে।

 

আমি-আমরা বাঁচতে চাই, কথা বলতে চাই

চব্বিশ বছর যা বলতে চেয়েছিলাম।

আমি-আমরা হাসতে চাই, যেমন যেমন করে

হাসতে চেয়েছিলাম, কথা বলতে চেয়েছিলাম।

 

স্বাধীনতা, তোমার অস্তিত্বের পরশ পেতে চাই;

তোমার অশরীরি অস্তিত্বের গন্ধ পেতে চাই;

তোমাতে আমি অবগাহন করতে চাই,

মৎস্য যেমন থাকে পানিতে অবগাহন করে।

 

তোমার অস্তিত্বের লড়াইয়ে সম্মুখ সারিতে থাকতে চাই,

১৯৭১-র বীর শহীদদের মতো, বন্দুক হাতে

নিজেকে উৎসর্গ করতে চাই, ত্রিশ লক্ষের মাঝে।

আমিও আমার নাম লেখাতে চাই।

 

তবুও হে স্বাধীনতা, আমি তোমার স্বাদ পেতে চাই।

মতামত
লোডিং...