ঈদের হেলাল || বে-নজীর আহমদ || কবিতা

ঈদের হেলাল আজি জ্বালিয়াছে নব আশা নূর
আবার বেলাল হেথা ধ্বনিবে কি আজানের সুর?
জীবন জোয়ার রসে জীগরে-জীগরে জ্বালি জোশ
বিজয় খোয়াবে ঘেরা আজাদী-জ্বেহাদ-বাণী খোশ
সে-নব আজান-রবে জাহানে-জাহানে আজি ফের
উথলি উঠিবে বুঝি আর বুঝি নাহি নাহি দের
নিদালী-শয়ন ত্যজি গাজীরা ধরিবে তরবার-
জালেমী রোষের দাহ- দলিতের আঁখিজল-ধার
লহুর ম‌উজে ভাসি হবে ধুয়ে পুত মহীয়ান-
দীনের দুনিয়া পরে আবার জাগিবে কলগান।
ঈদের হেলাল-
তাহারি খুশির বাণে রাঙিল কি দিগন্তের ভাল?

 

শ্যামলা ধরণী বুকে আজি শুধু ব্যথা আঁধিয়ার
হাসির দ্বীপের ঘেরি দুলিতেছে আঁসুর পাথার।
খোদার-করুণা-দানে আছে ভরা নিখিল জাহান
ঋতুতে-ঋতুতে আসে মাঠে-মাঠে ফসলের বান-
তটিনী-তড়াগে দোলে বরষার কল-কল-জল
তরুতে-তরুতে ফলে মধুভরা শত সুধা-ফল
তবু যেথা ক্ষুধা-দাহে ধুঁকিতেছে কোটি অসহায়-
এত ধন- তবু তারা তার কণা ধুলি নাহি পায়,
তোমরা ম‌উজে মাতো- খানাপিনা চলে দিবারাতি
তাহারা মাগিছে কাঁদি দ্বারে-দ্বারে এক মুঠা ভাত।
ঈদের হেলাল-
তাহারি বেদনা রাগে রাঙিল কি দিগন্তের ভাল?

 

তোমরা আতর মাখি পরো আজি কত না বসন
বেদনা কাতর কাঁদে- নাহি কিছু আবরে যে তন ;
তোমরা কাতার বাঁধি জমায়েত ঈদের জামাত-
ভিখারী আতুর কাঁদে- পথে তব মেলি দুটি হাত ;
তোমরা খুশীতে মাতি মিলিতেছ রাখি বুকে বুক-
তাহারা তফাতে থাকি রহে চাহি- নাহি আশা সুখ।
তোমরা ফরাশে বসি গরাসে খোশালী খানা খাও
তাহারা পথের বুকে গিলে শুধু অশ্রুর পোলাও।
তবুও হেথায় নাকি বাজিতেছে মিলনের গান-
ও মিছে ছলনা ভুলি জাগিবে সে কবে তাজা প্রাণ।
ঈদের হেলাল-
খুশীর রঙিন রাগ রাঙিবে কি দিগন্তের ভাল?

 

(বে-নজীর আহমদ রচনাবলী : শাহাবুদ্দীন আহমদ সম্পাদিত, বাংলা একাডেমী, ২০০৭, ১৫৫ পৃষ্ঠা থেকে সংগৃহীত।)
মতামত
লোডিং...